0

আইসিটিতে কর্মসংস্থানের বেকারদের সুযোগ

ict divitionপ্রায় আড়াই লাখ মানুষের আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে খুব শিগগিরই ই-কমার্স প্রকল্প কর্মসূচি চালু করতে যাচ্ছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) মন্ত্রণালয়। রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি জুনাইদ আহমেদ পলক। চলতি মাসের তৃতীয় সপ্তাহে ভিন্নধর্মী বিজনেস সল্যুউশন প্রদর্শনী ‘বিজটেক বিটুবি কনফারেন্স’ উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় পলক বলেন, ই-কমার্স প্রকল্পের আওতায় রাজধানীসহ সারাদেশে এক হাজার ই-কমার্স লিডার তৈরি হবে। দেশের ৬৪ জেলা থেকে ৫শ ছেলে ও ৫শ মেয়েকে ই-কমার্স প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। তারা ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মের মধ্যে দিয়ে বেসরকারি খাত ছোট ছোট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলবে।

তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশের আইসিটি খাতের উন্নয়নের পেছনে রয়েছে তাদের নিজস্ব মার্কেট। তারা নিজেদের ক্রেতা এবং ব্যবহারকারীদের বাজার ধরে পরবর্তীতে বিশ্ববাজার দখল করেছে।

১৬ কোটি মানুষের এদেশে আইটির বিশাল মার্কেট রয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, সরকার নিজে ব্যবসা করে না, ব্যবসার বাজার সৃষ্টি করে। সুতরাং, সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে নিজস্ব বাজার দখল করতে পারলে বাংলাদেশ আরো বহুদূর এগিয়ে যাবে।

0

ঘরে বসে আয়ের কিছু উপায়

1000 taka moneyতথ্যপ্রযুক্তির উৎকর্ষের এই যুগে বাসায় বসেই নানা রকম কাজের সুযোগ রয়েছে। এ রকম স্বাধীনভাবে উপার্জনের জন্য আপনার চাই দক্ষতা ও নিষ্ঠা এবং অবশ্যই ইন্টারনেট-সংযোগ। চলুন, অফিসে না গিয়েই করা যায়, এমন কিছু কাজ সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা নিই
ই-মেইলে বিপণন: জনসংযোগ বা বিপণন বিষয়ে পড়াশোনা বা কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে আপনি ই-মেইলের মাধ্যমে বিপণনের কাজ করতে পারেন। বিভিন্ন পণ্যের প্রচার এবং গ্রাহকদের সঙ্গে যোগাযোগের এই কাজ কোনো একটি প্রতিষ্ঠানে যেমন করা যায়, তেমনি ফ্রিল্যান্স ভিত্তিতে একাধিক প্রতিষ্ঠানেও করার সুযোগ আছে। যোগাযোগ এবং ওয়েব ও গ্রাফিক ডিজাইনে দক্ষ ব্যক্তিরা এ কাজে বাড়তি সুবিধা পাবেন।
প্রচারমূলক ভিডিওচিত্র নির্মাণ: চলচ্চিত্র নির্মাণ বিষয়ে জানাশোনা বা কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে স্বাধীন নির্মাতা হতে পারেন। কাজটা হলো বিভিন্ন পণ্যের বিজ্ঞাপন বা প্রচারমূলক ভিডিওচিত্র বানিয়ে ইউটিউব, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম প্রভৃতি অনলাইন মাধ্যমে প্রকাশের। এ জন্য সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো ভালো পারিশ্রমিক দেবে।

ফ্রিল্যান্স লেখালেখি: কপি রাইটিং থেকে শুরু করে ছদ্মনামে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও প্রকাশনা সংস্থার হয়ে লিখতে পারেন। তবে এ জন্য চাই প্রচুর পরিশ্রম ও ধৈর্য। লেখার মান ভালো হলে এ কাজের মাধ্যমে ঘরে বসে বা প্রত্যন্ত এলাকায় থেকেই পর্যাপ্ত আয়ের সুযোগ রয়েছে।

ওয়েব/গ্রাফিক ডিজাইন: ওয়েব ডিজাইন বা গ্রাফিক ডিজাইনের কাজের চাহিদা রয়েছে। তবে সেটা ভালো করে রপ্ত করতে হবে। রাতারাতি এটা সম্ভব হয় না। আজকাল অনলাইনেও এসব বিষয় শেখা যায়। এখন প্রায় সব প্রতিষ্ঠানেরই ওয়েবসাইট খুলে সেগুলো নিয়মিত হালনাগাদ করতে হয়। তাই এসব ডিজাইনারের কাজের সুযোগ ভবিষ্যতে অনেক বাড়বে।

অনুবাদক: দুই বা তারও বেশি ভাষায় দক্ষতা থাকলে অনুবাদকের কাজ পাবেন। এ রকম কাজ বাড়িতে বসেই করা যায়। বাঁধাধরা চাকরিতে না গিয়ে ফ্রিল্যান্স বা চুক্তিভিত্তিক অনুবাদের কাজও পাওয়া যায়। অনলাইন পোর্টাল বা বিভিন্ন প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অনুবাদক নিয়োগ করে থাকে।

গ্রাহকসেবা ব্যবস্থাপনা: অনেক প্রতিষ্ঠান নিজেদের পণ্যের বিষয়ে অনলাইনে গ্রাহকদের অনুরোধে সেবা দিয়ে থাকে। ইন্টারনেটনির্ভর কেনাকাটার বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ‘হেল্প’ অথবা ‘তাৎক্ষণিক সাহায্যের জন্য ই-মেইল করুন’ ইত্যাদি অংশ থাকে ক্রেতাদের জন্য। গ্রাহকসেবা ব্যবস্থাপকদের কাজ হলো নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এসব অনুরোধের জবাব দিয়ে সেবার গুণগত মান বৃদ্ধি করা। এটা দূরে থেকে অনলাইনে অথবা ক্ষেত্রবিশেষে ফোনেই সম্পন্ন করা যায়।

অ্যান্ড্রয়েড বা আইফোনের অ্যাপ তৈরি: কম্পিউটার বিজ্ঞান বা সফটওয়্যার প্রকৌশলে পড়াশোনা থাকলে অ্যান্ড্রয়েড বা আইফোনের বিভিন্ন অ্যাপ তৈরির কাজ করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে মানুষের চাহিদা ও বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের উপযোগী অ্যাপ বানাতে হবে। এ কাজ যেকোনো স্থানে বসে করা সম্ভব।

তহবিল সংগ্রহ: বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনের জন্য চলচ্চিত্র ও সংগীতের আয়োজন বা দাতব্য প্রকল্প চালনার উদ্দেশ্যে তহবিল সংগ্রহের প্রচলন পশ্চিমা দেশগুলোতে বেশি। বিক্রয় ও বিপণন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দক্ষতা এবং সাধারণ মানুষের সঙ্গে সংযোগ এ ক্ষেত্রে আপনাকে এগিয়ে রাখবে।

ই-বই প্রকাশ: যুগ পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে কাগুজে বইয়ের জায়গা নিচ্ছে যান্ত্রিক ই-বই। এখন মানুষ ই-বই কিনতে শুরু করেছে এবং এর একটা বড় বাজারও তৈরি হচ্ছে। এসব বই প্রকাশ ও বিপণনের কাজ পুরোটাই ইন্টারনেটনির্ভর। এ কাজের চাহিদা ক্রমশ বাড়ছে।

আপনার বর্তমান কাজ: অতীতের যেকোনো সময়ের তুলনায় এখন ঘরে বসে নানান পেশার কাজ সম্পন্ন করার সুযোগ বেড়েছে। প্রযুক্তিগত সুবিধা সহজলভ্য হওয়ায় অনেক প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম অনলাইননির্ভর হয়ে যাচ্ছে। অফিসে না গিয়ে দূর থেকেই করে ফেলা যাচ্ছে বেশির ভাগ কাজ। আপনার বর্তমান কাজের ধরনটাও সেভাবে পাল্টে নিয়ে বাড়িতে বসেই করা যায় কি না, যাচাই করে দেখুন।

0

স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবের পথে

padma shetu bridgeবাস্তবের পথে বহুল প্রত্যাশিত পদ্মা সেতু। দ্রুত এগিয়ে চলছে কাজ। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন সেতুর মূল কাজ শেষ হতে খুব বেশি সময় লাগবে না।

শুক্রবার মাওয়া ঘাট এলাকা ঘুরে দেখা যায় দ্রুত এগিয়ে চলছে সেতুর নির্মাণ কাজ। পদ্মা সেতু এখন আর স্বপ্ন নয়, বাস্তবতা। এ উপলক্ষে পদ্মার বুক জুড়ে চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ। ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে পাইলিংয়ের কাজ। এটি সম্পন্নের এক বছরের মধ্যেই শেষ হবে স্বপ্নের পদ্মা সেতু এমন তথ্য জানা গেছে।মাওয়া জাজিরা অংশে মোট ৫টি পিলারের পাইলিংয়ের কাজ শুরু হয়েছে। মাওয়া অংশে ৬ ও ৭ নং পিলার এবং জাজিরায় চলছে ৩৬, ৩৭ ও ৩৯ নং পিলারের কাজ।

পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক শহিদুল ইসলাম জানান, মোট পিলার হবে ৪২ টি।এর মধ্যে শুরু ও শেষে ১২ টি পিলারের উপর পাইলিং এর কাজ হবে। বাকী  পাইলিংয়ের কাজ হবে ৬টি করে পিলারের উপর।

পরিকল্পনা মন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল আজ (শুক্রবার) পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্পের কাজ পুরাদমে চলছে। পাইলিংয়ের কাজ শেষ হলে এক বছরের মধ্যে পদ্মা সেতু কাজ শেষ হবে।এখন যা দেখলাম তাতে মনে হচ্ছে,  স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কাজ নির্ধারিত মেয়াদের মধ্যেই শেষ হবে।

প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, এই সেতুর জন্য বর্তমানে মোট বরাদ্দ ২৮ হাজার সাতশ ২৯ কোটি টাকা। বাস্তবায়নের অগ্রগতি ৩৩ শতাংশ। এর মধ্যে মূল সেতুর কাজ ২১ দশমিক ৫ শতাংশ এবং নদী শাসনের কাজ ১৮ দশমিক ২৭ শতাংশ।

0

ফেসবুক থেকে টাকা আয়

facebook fbফেসবুকে পোস্ট করেন। কিন্তু পোস্ট করার পরে লাইক, কমেন্ট ছাড়াও যদি টাকা পান, কেমন লাগবে? ফেসবুক পোস্টের জন্য শিগগিরই অর্থ আয়ের সুযোগ করে দিতে যাচ্ছে ফেসবুক। শিগগিরই এ নিয়ে একটি ফিচার ফেসবুকে দেখা যাবে।

সম্প্রতি ফেসবুক তাদের ব্যবহারকারীদের নিয়ে করা একটি জরিপ করে। জরিপে ফেসবুক ব্যবহার করে কীভাবে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা আয় করতে পারেন তা নিয়ে একাধিক পরামর্শ উঠে এসেছে। তার মধ্যে অন্যতম হল, বিজ্ঞাপন থেকে সংগৃহীত অর্থের একাংশ নিজেদের ব্যবহারকারীদের দেবে ফেসবুক।

কিন্তু এই সুবিধা ফেসবুক সব ব্যবহারকারীকেই দেবে, না কি শুধু ‘ভেরিফায়েড ইউজার’-দের জন্য চালু করবে, সে বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি। ফেসবুক এর এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে ফেসবুক ব্যবহারকে আর্থিক দিক থেকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলার লক্ষ্যে সংস্থার একাধিক পরিকল্পনা রয়েছে।

0

পুরাতন রাউটারের কারণে রিজার্ভ লুট

bangladesh bankবাংলাদেশ ব্যাংকের দুর্বল হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার সিস্টেমের কারণেই হ্যাকাররা রিজার্ভ থেকে ৮০ মিলিয়ন ডলার চুরি করতে সক্ষম হয়েছিল। বিশ্বের সঙ্গে আর্থিক নেটওয়ার্কিংয়ের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংকটি দীর্ঘদিন ধরে একটি পুরাতন (সেকেন্ড হ্যান্ড) রাউটার ব্যবহার করে আসছে। এর বাজার মূল্য মাত্র ১০ ডলার। এছাড়া ব্যাংকের রিজার্ভের নিরাপত্তায় আলাদা কোনো পার্টিশনও ব্যবহার করা হয়নি কখনও। এসব কারণে খুব সহজেই হ্যাকাররা ব্যাংকের অর্থ লুট করতে সক্ষম হয়েছে। শুক্রবার রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

যদি ব্যাংকে উন্নত নিরাপত্তা ব্যবস্থা, হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার থাকত তবে তা হ্যাকারদের কাজে বাধা দিতে পারত বলে এক তদন্ত কর্মকর্তা দাবী করেছেন। একটি দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যারে যে পরিমান নিরাপত্তা নিশ্চিত করা উচিত তা বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্ষেত্রে ছিল না। আর এটাই ব্যাংক হ্যাকিংয়ের অন্যতম কারণ।

ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে ১ বিলিয়ন ডলার লুট করার পরিকল্পনা করেছিল হ্যাকাররা। কিন্তু তাদের ভুলের কারণে সেটা সম্ভব হয়নি। একটি মাত্র বানান ভুলের কারণে হ্যাকাররা তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেনি। তারা ১ বিলিয়ন ডলারের পরিবর্তে ৮১ মিলিয়ন ডলার চুরি করতে সমর্থ হয়েছিল। কিন্তু এই অর্থও তারা লুট করতে পারত না যদি ব্যাংকের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় কোনো ঘাটতি না থাকত।

মোহাম্মদ শাহ আলম নামে এক ফরেনসিক তদন্তকারী কর্মকর্তা জানান, বাংলাদেশ ব্যাংকের কোনো উন্নত ফায়ারওয়াল সিস্টেম ছিল না। অথচ এই ফায়ারওয়াল সিস্টেমই ব্যাংক হ্যাকিংকে আরো কঠিন করতে পারত।

তিনি এক্ষেত্রে ওই সেকেন্ড হ্যান্ড রাউটার ব্যবহারকে দায়ী করে বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নেটওয়ার্কিংয়ের ক্ষেত্রে মৌলিক কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। ওই সস্তা রাউটারটির জন্য হ্যাকাররা সহজেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভেঙে অর্থ লুট করতে পেরেছে। আর এখনও ওই রাউটারের জন্যই তদন্ত প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। কেননা এটা খুব বেশি তথ্য দিতে পারছে না যার ফলে হ্যাকারদের কৌশল সম্পর্কে বেশি কিছু জানা সম্ভব হচ্ছে না।

ব্যাংকিং নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের দাবী কেন্দ্রীয় ব্যাংক হিসেবে নিজেদের ব্যাংকিং সিস্টেমে নিরাপত্তা আরো জোরদার করতে বাংলাদেশ ব্যাংককে আরো অর্থ ও সময় ব্যয় করা প্রয়োজন ছিল। কিন্তু দুঃখের বিষয় দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক হয়েও বাংলাদেশ ব্যাংক নিজেদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা শক্তিশালী করতে পারেনি।

সাইবার ফার্ম অপটিভের পরামর্শক জেফ উইচম্যান বলেন, আমরা এমন একটি প্রতিষ্ঠানের বিষয়ে কথা বলছি যার আওতায় কয়েক বিলিয়ন অর্থ মজুদ রয়েছে। অথচ তারা নিজেদের মৌলিক সচেতনতার বিষয়ে মোটেও কোনো গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নেয়নি।

0

ফেসবুক মেসেঞ্জারে গ্রুপ কল করা যাবে বিনামুল্যে

facebook apps fbসামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক বুধবার মেসেঞ্জারে বিনামুল্যে গ্রুপ কল করার সুবিধার ঘোষণা দেয় । অ্যানড্রয়েড ও আইওএস ব্যবহারকারীরা ফিচারটি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পেয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে।

সুবিধাটি উপভোগ করতে চাইলে চ্যাটবক্সের পাশের ফোন আইকনে চাপ দিতে হবে এবং কোন কোন বন্ধুর সঙ্গে কথা বলতে চান, তাদের সিলেক্ট করে ডায়াল বাটনে ক্লিক করতে হবে। আর সবাই কল রিসিভ করার সাথে সাথে গ্রুপ কনভারসেশন শুরু করা যাবে। একটি গ্রুপ কলে সর্বোচ্চ ৫০ জন পর্যন্ত অংশ নিতে পারবে।

ধারণা করা হচ্ছে, এই গ্রুপ কলের সুবিধা তৈরি হওয়ার পর গুগল হ্যাংআউট, মাইক্রোসফট স্কাইপে কিংবা স্ল্যাকের মতো প্ল্যাটফর্মগুলো নতুন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হবে।

0

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু ৩ এপ্রিল

examউচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা ৩ এপ্রিল শুরু হবে। মঙ্গলবার এ পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড (মাউশি)।

সূচি অনুযায়ী ৩ এপ্রিল তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা শুরু হয়ে শেষ হবে ৯ জুন। প্রথমে বহুনির্বাচনী (এমসিকিউ) ও পরে সৃজনশীল/রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ব্যবহারিক পরীক্ষা ১১ জুন থেকে শুরু হয়ে ২০ জুন শেষ হবে।

0

শাহবাগ চত্বরে ভালোবাসা দিবসের অনুষ্ঠান

A girl and a boy love wallpaperভালোবাসা মানেই সুন্দর কিছু, আর ভালোবাসার শহর মানেই সুন্দর পরিচ্ছন্ন শহর। ঢাকা প্রত্যেক ঢাকাবাসীর কাছে ভালোবাসার শহর। ঢাকার প্রত্যেক মানুষের একটাই চাওয়া একটা সুন্দর, পরিচ্ছন্ন, সাজানো-গুছানো পরিপাটি ঢাকা শহর। এজন্যই ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ২০১৬ সালকে পরিচ্ছন্ন বছর হিসেবে ঘোষণা করেছে।

আর এ ঘোষণা বাস্তবায়ন করে সুন্দর পরিচ্ছন্ন ঢাকা শহর শহরবাসীকে উপহার দিতে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ শাহবাগ চত্বরে ‘প্রাণসখা ঢাকা’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে  বিজ্ঞাপনী সংস্থা মাত্রা’র সহযোগিতায় আয়োজিত এ অনুষ্ঠান সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে বিকাল ৫টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত চলবে। এতে থাকছে গুণীজনের কথা, ঢাকার ঐতিহ্যের প্রদর্শনী, ঢাকাইয়া খাবারের আয়োজন, নাচ, কবিতা আবৃত্তি, ভালোবাসার গানের কনসার্ট, যাতে থাকছে দেশের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, জেমস, জলের গান, শিরোনামহীনসহ আরো অনেক ব্যান্ড দলের শিল্পীদের পরিবেশনা।

0

দেয়াল ভেদ করে নিখুঁতভাবে দেখার ব্যবস্থা আবিষ্কৃত হলো

scan wall deyalযে কোনো দেয়ালের ওপাশে কোনো মানুষ রয়েছে কি না, তা জানার জন্য সম্প্রতি এক প্রযুক্তি উন্নয়ন করেছেন গবেষকরা। এ প্রযুক্তিতে রেডিও সিগন্যাল ব্যবহার করে জানা হবে দেয়ালের ওপাশের ব্যক্তির উপস্থিতি। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।
‘এক্স-রে ভিশন’ প্রযু্ক্তিতে ব্যবহৃত হচ্ছে রেডিও ওয়েভ শনাক্তকরণ ব্যবস্থা। এর মাধ্যমে মূলত মানুষের নড়াচড়া নির্ণয় করা যাবে। মানুষের দেহ থেকে রেডিও ওয়েভ বাধা পেয়ে ফিরে আসাকেই নির্ণয় করবে যন্ত্রটি।
প্রযুক্তিটি উন্নয়ন করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) বিজ্ঞানীরা। রেডিও ওয়েভ ফিরে আসা নিখুঁতভাবে যন্ত্রে শনাক্ত করে করে তা বিশ্লেষণের মাধ্যমে দেয়ালের ওপাশের মানুষের উপস্থিতি নির্ণয় করতে পারবে যন্ত্রটি। এ কাজে কম্পিউটারের মাধ্যমে বিশেষ সূত্র ব্যবহার করে ফিরে আসা রেডিও সিগন্যাল বিশ্লেষণ করতে হবে।
অন্য কয়েকটি পদ্ধতিতে অন্ধকার থাকতেও মানুষের উপস্থিতি জানা যায়। তবে সেক্ষেত্রে মোশন-ট্র্যাকিং ডিভাইস ব্যবহার করা হয়, যা এ ব্যবস্থা থেকে আলাদা।
বাস্তব পরীক্ষায় দেখা যায়, সিস্টেমটির আওতায় ১৫ ধরনের ভিন্ন মানুষকে ৯০ শতাংশ নির্ভুলতার সাহায্যে শনাক্ত করা যায়। যন্ত্রটি মানুষের নড়াচড়া ০.৮ ইঞ্চি পর্যন্ত নিখুঁতভাবে শনাক্ত করতে পারে বলে জানান গবেষকরা।
প্রযুক্তিটি বিষেয়ে এমআইটির গবেষক ও পিএইচডি শিক্ষার্থী ফ্যাডেল আডিব বলেন, ‘এটা বাস্তবে আপনাকে দেয়ালের ওপাশে দেখতে সহায়তা করবে।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের আবিষ্কার এখনো অন্য যে কোনো অপ্টিক্যাল সিস্টেমে পাবেন না। গত তিন বছরে আমরা দেয়ালের ওপাশের কোনো বস্তুর অস্তিত্ব জানা থেকে তার নড়াচড়া নির্ণয়ের প্রযুক্তিতে উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছি। এখন আপনি এ প্রযুক্তি ব্যবহার করে ওপাশের মানুষটি দেখতে কেমন এবং তার শ্বাস-প্রশ্বাস ও হৃৎস্পন্দন জানতে পারবেন।’
এ প্রযুক্তি বিভিন্ন ইশারা নিয়ন্ত্রণ কাজে ব্যবহৃত ডিভাইসে ব্যবহার করা যাবে। এ প্রযুক্তিটি মাইক্রোসফটের কাইনটেক সিস্টেমের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে কাজ করবে। এটি সিনেমার স্পেশাল ইফেক্টে মোশন ক্যাপচার, স্মার্ট বাড়ির যন্ত্রপাতি নিয়ন্ত্রণ, চিকিৎসাক্ষেত্রে রোগীর নড়াচড়া নির্ণয় কিংবা গেইমিংয়ে ব্যবহার করা যাবে।

 

— kalerkantho

0

বাংলাদেশ ব্যাংক লোগোর পরিবর্তন

bangladesh bankব্যাংকিং মেলার লোগোর কিছুটা পরিবর্তন এনেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। শুক্রবার এই পরিবর্তন আনার বিষয়টি জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী মুখপাত্র এএফএম আসাদুজ্জামান।

জানা গেছে, আগামী ২৪ নভেম্বর থেকে ২৮ নভেম্বর বাংলা একাডেমিতে এই মেলা হবে।

এএফএম আসাদুজ্জামান বলেন, দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ব্যাংকিং মেলার আয়োজন করা হচ্ছে। বাংলাদেশ ব্যাংক মনে করছে, এই মেলার মাধ্যমে যারা ব্যাংকিং সেবার বাইরে রয়েছেন, এমন ব্যক্তিরা নতুন করে ব্যাংকিং সেবার মধ্যে আসবেন। মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে। মেলায় কোনো প্রবেশ ফি থাকছে না। দেশের সকল ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ নেবে।

আসাদুজ্জামান আরো বলেন, ইতোমধ্যে সকল ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে নির্দেষ দেয়া হয়েছে প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে মেলায় অংশ নিতে প্রস্তুতি নিতে।

গভর্নর ড. আতিউর রহমান মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী মুখপাত্র আসাদুজ্জামান।